Business Week 
Image
Business Week Image

কেন লিনাক্স


নিজের পছন্দমত ডেস্কটপ-পরিবেশ বেছে নিন।

আপনি যদি Windows ইউজার হন, সেক্ষেত্রে আপনার ডেস্কটপ দেখতে খুব সম্ভবত নিচের স্ক্রীনশট থেকে খুব একটা ভিন্ন নয়।

মোটামুটি সব Windows ব্যবহারকারীর ডেস্কটপ দেখতে একই রকম। ওয়ালপেপার পাল্টাতে পারবেন, উইন্ডো ডেকোরেশন (উইন্ডোর চারপাশে বর্ডার) এর রঙ পাল্টাতে পারবেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত একটা ইন্টারফেসেই সীমাবদ্ধ থাকতে হবে। আপনি হয়তো চাইলে টাস্কবারটা নিচে না দিয়ে ডানে/বামে বা উপরে দিতে পারেন, কিন্তু দু-তিনটা বা ইচ্ছামত টাস্কবার আনতে পারবেন না। বাটন বা মেনুর চেহারা পাল্টাতে পারবেন না। সিস্টেমের ডিফল্ট আইকনগুলো বদলাতে পারবেন না। স্টার্ট মেনুর গঠন পাল্টাতে পারবেন না।

লিনাক্সে সবকিছুর চয়েস আপনার হাতে। আজীবন এক চেহারার স্টার্ট মেনু অথবা উইন্ডো ডেকোরেশন সিস্টেম নিয়ে বসে থাকতে হবে না। ভয়ের কিছু নেই, ব্যাপারগুলো জটিল মনে হলে আপনি ডিফল্ট থিম নিয়েও জীবন পার করে দিতে পারেন। জেনে রাখবেন শুধু, চাইলেই এখানে সব করা সম্ভব।

তো, আপনি যদি সহজ, কার্যকর এবং ফ্রেন্ডলি পরিবেশ চান, সেক্ষেত্রে উবুন্টু বা মিন্ট (GNOME) হল আপনার জন্য আদর্শঃ

আপনার পছন্দ যদি হয় চোখ-ধাঁধানো আকর্ষনীয় চেহারার ডেস্কটপ, তাহলে KDE দেখতে পারেনঃ

আপনার একটু দূর্বল পিসিতে LXDE অথবা XFCE চালাতে পারেন। দেখতে সাধারন, তাই হার্ডওয়্যার রিকোয়ারমেন্ট অনেক কম। বলা বাহুল্য, পার্থক্যটা শুধু চেহারায়... স্বাভাবিক কাজকর্ম সবই চলবে এতেঃ

আর যদি সবকিছু বদলে সম্পূর্ণ নিজের মত করে কিছু বানাতে চান, সেটাও সম্ভবঃ

দেখতেই পাচ্ছেন, লিনাক্সে আপনার পছন্দ/প্রয়োজন মত ডেস্কটপ-পরিবেশ বেছে নেয়া যায়। এবং এই সিদ্ধান্ত একবারই নেওয়া যবে এরকমও নয়, কম্পিউটারে লগ-ইনের সময় প্রতিবার ঐ সেশনের জন্যে ইচ্ছেমত স্টাইল সিলেক্ট করে দেয়া যায়।